কার্ট

সব বই লেখক বিষয়

বিষয় লিস্ট

মোস্তাক আহ্‌মাদ এর আপনিই আপনার সফল নির্মাতা

এক নজরে

মোট পাতা: 264

বিষয়: আত্মউন্নয়ন

** বইটি ডাউনলোড করে পড়তে আপনার সেইবই অ্যাপটি ব্যবহার করুন।

আপনিই আপনার সফল নির্মাতা

 

আপনি কি চান, কেন চান আপনার প্রতিটি কাজ ও সিদ্ধান্ত আপনার ইচ্ছেরই প্রতিফলন ঘটায়। তাই আপনিই আপনাকে নির্মাণ করেন কাজ ও চিন্তাশক্তির মাধ্যমে। ইচ্ছের জোরে অসম্ভবকে সম্ভবে পরিণত করা যায়। আগ্রহ ও উৎসাহের অভাব থাকলে ইচ্ছাশক্তিও ঠিকভাবে কাজ করে না।

একটি উপত্যকা বরাবর এক সিংহ এক কৃষ্ণসার হরিণকে তাড়া করছিল। সিংহটি হরিণকে প্রায় ধরে ফেলেছিল এবং ক্ষুধার্ত চোখে একটা সন্তোষজনক খাদ্যের কথা ভাবছিল। মনে হচ্ছিল, শিকারের পক্ষে পালানো একেবারেই অসম্ভব : কারণ একটা গভীর গিরিখাত শিকারী ও শিকার উভয়ের সামনে এসে তাদের পথ বন্ধ করে দিয়েছিল। কিন্তু দুর্বল হরিণ তার সর্বশক্তি সংহত করে ধনুক থেকে ছোঁড়া তীরের মতো এক লাফে ওপারের গিরিচূড়ায় স্থির হয়ে দাঁড়িয়ে পড়ল। আমাদের সিংহ তা করতে পারল না। কিন্তু সেই মুহূর্তে তার এক বন্ধুকে হাতের কাছেই পাওয়া গেল। সে বন্ধু ছিল খ্যাঁকশিয়াল। সে বলল, “কি! আপনার এই শক্তি এবং ক্ষিপ্রতা থাকতে এই দুর্বল কৃষ্ণসারের কাছে হার মানবেন! এটা কি সম্ভব? আপনার শুধু ইচ্ছে থাকা দরকার, এবং আপনি আশ্চর্য সাধন করবেন। গহ্বর যদিও গভীর তবুও যদি আপনার আগ্রহ থাকে, আমি নিশ্চিত, আপনি এটা লাফাতে পারবেন। আপনি নিশ্চিতভাবে আমার স্বার্থহীন বন্ধুত্বে আস্থা রাখতে পারেন। আপনার শক্তি এবং দক্ষতা সম্পর্কে সচেতন না হলে আমি আপনার জীবন বিপন্ন করতে বলতাম। সিংহের রক্ত গরম হয়ে তার শিরার মধ্যে ফুটতে লাগল। সে তাঁর সব শক্তি দিয়ে লাফাল। কিন্তু সে ওপারে পৌঁছুতে পারল না; মাথার ওপর নীচে পড়ে মরল। তারপর তার প্রিয় বন্ধু কি করল? সে সতর্কতার সাথে গিরিখাতের তলায় নামল এবং সেখানে খোলা জায়গায়, মুক্ত বাতাসে যখন দেখল যে সিংহ আর তোষামোদ বা আনুগত্য কিছুই চায় না, তখন সে তার মৃত বন্ধুর শেষ দুঃখজনক আচার পালন করতে শুরু করল এবং মাসখানেকের মধ্যে তার হাড়কে পরিষ্কার করে ফেলল।

রাশিয়ার উপকথা, ইভান ক্রিলফ, ১৭৬৮-১৮৪৪

 

আমাদের সকলের প্রতিরোধ আছে। পরিবর্তনের এবং বন্ধু ও শত্রুদের অনধিকার প্রবেশমূলক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে নিজেকে রক্ষা করার জন্য আমরা আমাদের চারিদিকে সব সময়ের জন্য একটা বর্ম পরে বাস করি। তবুও লোকদের বোঝার জন্য একটা গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হল, তাদের সকলের দুর্বলতা আছে, তাঁদের মানসিকতার বর্ম তা প্রতিরোধ করবে না, আপনি যদি এটা বের করে ব্যবহার করতে পারেন তা আপনার ইচ্ছামতো নোয়াবে। কারও কারও দুর্বলতা দেখা যায়, কারও কারও লুকানো থাকে। যাঁরা তাঁদের দুর্বলতা গোপন রাখেন, তাঁদের অধিকাংশই সেরকম যাঁদের বর্মের একটা ফাটল দিয়ে শেষ করা যায়।

আপনার আক্রমণ শানানোর সময় নিম্নোক্ত নীতিগুলি খেয়াল রাখুন : তাঁদের ভঙ্গি এ অচেতন সঙ্কেতের প্রতি মনোযোগ দিন। যেমন সিগমণ্ড ফ্রয়েড মন্তব্য করেছিলেন, “কোনো মরণশীলই কিছু গোপন রাখতে পারে না। যদি তাঁর ঠোঁট নীরব থাকে, তিনি আঙুলের আগা দিয়ে কথা বলেন; তাঁর প্রতি লোমকূপ থেকে বিশ্বাসঘাতকতা ফুটে বের হয়। কোনো মানুষের দুর্বলতা খুঁজে বের করার জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ধারণাগুরুত্বহীন ভঙ্গি এবং টুকরো শব্দের মাধ্যমে প্রকাশ পায়।

কি আপনি খুঁজছেন শুধু তাই চাবিকাঠি নয় কিন্তু কোথায় এবং কীভাবে খোঁজ করেন সেটাই আসল।

যদি আপনি সন্দেহ করেন যে, কারও নির্দিষ্ট একটা দুর্বলতার জায়গা আছে পরোক্ষভাবে সেটার খোঁজ নিন। আপনার চোখকে বিস্তারিতের জন্য প্রশিক্ষিত করুনকেউ ভৃত্যকে কীভাবে উপরি দেন, কোনো ব্যক্তিকে কী আনন্দিত করে, পোশাকের লুক্কায়িত সংবাদ। লোকের উপাস্যদের, যার তাঁরা উপাসনা করে এবং তা পাওয়ার জন্য তাঁরা সব কিছু করতে রাজি আছেনহয়তো আপনি তাঁদের খোশখেয়ালের সরবরাহকারী হতে পারেন। মনে রাখুন : যেহেতু আমরা সকলেই আমাদের দুর্বলতা লুকিয়ে রাখতে চাই, আমাদের চেতন ব্যবহার থেকে কিছুই জানা যাবে না। আমাদের চেতন নিয়ন্ত্রণের বাইরে যা বেরিয়ে আসে, তাই আপনার লক্ষ্য।

অসহায় শিশুদের খুঁজে বের করুন। বেশির ভাগ দুর্বলতা নিজের রক্ষণ গড়ে তোলার আগে, শৈশবে শুরু হয়। সম্ভবত শিশুটিকে অত্যধিক প্রশ্রয় দেয়া বা একটা বিশেষ ক্ষেত্রে ইচ্ছাপূরণের প্রশ্রয় দেয়া হয়েছিল, হয়তো কোনো আবেগময় প্রয়জনের অভাব অপূর্ণ থেকে গেছে; তাঁর বড় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সেই প্রশ্রয় বা চাপা পড়ে যেতে পারে কিন্তু শেষ হতে পারে না। শৈশবের প্রয়জন আপনাকে কোনো ব্যক্তির দুর্বলতার ক্ষমতাশালী চাবিকাঠি দেয়।

এই দুর্বলতার একটা চিহ্ন হল এই যে, আপনি যেটা যার মতাদর্শে স্পর্শ করবেন সেই ব্যক্তি শিশুর মতো ব্যবহার করবেন। তাই কোনো ব্যবহার তার থেকে জন্মেছে কি না খোঁজ করতে থাকুন।

বৈপরীতে খোঁজ করুন। একটি প্রকাশ্য স্বভাব প্রায়ই তার বিপরীতকে লুকিয়ে রাখে। যে লোকেরা বুক চাপড়ায় তাঁরা অধিকাংশই কাপুরুষ; চুপ করে বসে থাকা প্রায়ই অভিযানের অপেক্ষায় থাকে। বাইরের চেহারার বাইরে তাঁদের যাচাই করে আপনার কাছে তাঁরা যা প্রকাশ করেন, তার বিপরীতেই আপনি তাঁদের দুর্বলতা পেতে পারেন।

শূন্যস্থান পূরণ করুন। পূরণ করার জন্য দুটো আবেগময় শূন্যস্থান হল নিরাপত্তাহীনতা ও সুখহীনতা। নিরাপত্তাহীনতা সব রকম সামাজিক নিয়মের পক্ষপাতী; বরাবরের অসুখীদের জন্য তাঁদের অসুখের মূল খুঁজে বের করুন। নিরাপত্তাহীন ও অসুখীরা তাঁদের দুর্বলতা লুকিয়ে রাখতে সবথেকে কম সামর্থ্য। তাঁদের আবেগময় শূন্যস্থান পূরণ করার সামর্থ ক্ষমতার মহান উৎস এবং অনির্দিষ্ট কালের জন্য বিলম্বিত করার মতো উৎস।

অনিয়ন্ত্রণযোগ্য আবেগকে উস্কে দিন। অনিয়ন্ত্রণযোগ্য আবেগ বদ্ধমূল ভ্রান্তিজনিত ভয় হতে পারে__অবস্থানের সঙ্গে আনুপাতিক ভয়-বা কাম, লোভ, অহঙ্কার, বা ঘৃণার মতো যে কোনো নীচু উদ্দেশ্য। এই সব আবেগের অধীনস্থ লোকেরা প্রায়ই তাঁদেরকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না, তাঁদের জন্য নিয়ন্ত্রণটা আপনি করতে পারেন।

অঙ্গুষ্ঠ-স্ক্রু। আপনার শক্রর গোপন কথা আছে, যা তিনি রক্ষা করেন, সে জিনিস, সে ভাবনা তিনি প্রকাশ করেন না। কিন্তু তিনি সামলাতে পারেন না, এমনভাবে সেগুলি বেরিয়ে আসে। এখানে, তাঁর মাথায়, হৃদয় বা ক্ষুধায়, কোথাও তার দুর্বলতার খাঁজ আছে। সেই খাঁজটা বের করতে পারলেই আপনার অঙ্গুষ্ঠ লাগান ও আপনার ইচ্ছেমতো তাকে ঘোরান।

প্রতিটি মানুষের অঙ্গুষ্ঠ-স্ক্রু বের করুন। এটা তাঁদের ইচ্ছেকে কাজে নামানোর শিল্প। এটাতে সংকল্পের চেয়ে দক্ষতার দরকার বেশি। কাউকে কোথায় পাওয়া যাবে, সেটা আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে। প্রতিটি নির্বাচনেরই একটা বিশেষ উদ্দেশ্য থাকে, যা রুচির উপর নির্ভরশীল। সব মানুষই মূর্তিপূজক, কেউ কেউ খ্যাতির, অন্যরা নিজ স্বার্থ, অধিকাংশ আনন্দের। এই মূর্তিগুলোকে জেনে কাজে লাগানোই দক্ষতা। কোনো মানুষের প্রধান উদ্দেশ্য জেনে, আপনি যেন তাঁর ইচ্ছের চাবি পেয়েছে।

আপনি যা প্রত্যাশা করেন না। অন্যদের তা করতে শেখাবেন নাআপনি যা ভাবেনপ্রত্যাশা করেন অন্যদের সে রকম ব্যবহার করতে নিজের ভেতর পরিবর্তন আনুন। প্রায়ই আপনার চলার রকম ঠিক করে দেয় আপনার সঙ্গে কীরকম ব্যবহার করা হবে : দীর্ঘমেয়াদে, নিম্নশ্রেণির বা সাধারণ শ্রেণির চেহারা আপনাকে অশ্রদ্ধা করতে বাধ্য করবে। একজন রাজা নিজেকে শ্রদ্ধা করে এবং অন্যদের মধ্যে শ্রদ্ধার উদ্রেক করেন। রাজার মতো ব্যবহার করে এবং আপনার ক্ষমতা সম্পর্কে আত্মপ্রত্যয়ী হয়ে আপনি আপনাকে মুকুট ধারণ করার জন্য পূর্বনির্দিষ্ট করেন।

সব বড় প্রতারকদের একটা বিশেষ উল্লেখযোগ্য ব্যাপার থাকে, যার ওপর ক্ষমতা নির্ভর করে। প্রতারণার প্রকৃত কারবারে তাঁরা তাঁদের নিজের ওপর বিশ্বাসের ওপর নির্ভর করেন : এটাই তাঁদের কাছাকাছি যাঁরা থাকেন তাঁদের ওপর অত বিস্ময়করভাবে এবং বাধ্যতামূলকভাবে কাজ করে।

ফ্রেডরিখ নিয়েৎ সে, ১৮৪৪-১৯০০।

সংশ্লিষ্ট বই

পাঠকের মতামত
রিভিউ লিখুন
রিভিউ অথবা রেটিং করার জন্য লগইন করুন!