logo
0
item(s)

বিষয় লিস্ট

নির্মলেন্দু গুণ এর বাবা যখন ছোট্ট ছিলেন

বাবা যখন ছোট্ট ছিলেন
এক নজরে

মোট পাতা: 42

বিষয়: শিশুতোষ গল্প

‘মুখটা একটুখানি খোলো তো বাপু দয়া করে।’ ডাক্তার বললেন আমার বাবাকে।
ডাক্তারকে রোগ নির্ণয়ে সহায়তা করার জন্যই বাবা তখন বেশ বড়ো করে একটা হা করলেন। ডাক্তার দেখলেন তার মুখের ভিতরটা। কিন্তু ঐ যে তিনি হা করেছেন, তার জন্য ডাক্তার তাকে একটা নির্জলা ধন্যবাদ পর্যন্ত দিলেন না। তাকে ভালো দুটো কথা না বলেই ডাক্তারটি তার মুখের ভিতরে হাত ঢুকিয়ে দিয়ে আঙুল চালনা করে তার মুখগহ্বরে কী যেন খুঁজতে লাগলেন। ব্যাপারটা ছিলো খুবই বেদনাদায়ক এবং বিরক্তিকর। সে কারণেই ঐ ডাক্তার সাহেব যখন ‘এই তো পেয়েছি’ বলে আমার বাবার মুখের ভিতরের ক্ষতস্থানটিতে বেশ জোরের সঙ্গে আঙুলে চাপ দিলেন, তখন আমার বাবার সকল ধৈর্যের বাধ ভেঙে গেলো। আর ঠিক তখনই ডাক্তার সাহেব একটি আচমকা আর্ত চিৎকার দিয়ে আমার বাবার মুখের ভিতর থেকে তার ডান হাতখানি কোনোমতে টেনে বের করে আনলেন। তখন সবাই দেখতে পেলো যে, ডাক্তারের হাতের তালু থেকে রক্ত ঝরছে। চেম্বারে রীতিমতো একটা হইচই পড়ে গেলো। ডাক্তার সাহেবের মুখ থেকে একটি কথাই শুধু উচ্চারিত হলো : ‘আয়োডিন কোথায়, আয়োডিন দাও।’

সংশ্লিষ্ট বই

পাঠকের মতামত
রিভিউ লিখুন
রিভিউ অথবা রেটিং করার জন্য লগইন করুন!